চাটখিল পৌরসভা নির্বাচন: যোগ্য-অযোগ্য সবাই হতে চায় কাউন্সিলর

মাইনউদ্দিন বাঁধন:: ক্ষমতাসীন দলের মনোনয়ন পেলেই নিশ্চিত কাউন্সিলর। এমন বিশ্বাস আর ধারণা থেকেই যোগ্য-অযোগ্য সবাই এখন হতে চায় দলের কাউন্সিলর প্রার্থী। গত কয়েক মাস থেকে চাটখিল পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের জন্য আওয়ামী লীগের হয়ে মনোনয়ন প্রার্থী প্রায় শতাধীক নেতাকর্মী। সচেতন নাগরিকরা মনে করছেন, এতে অধিকতর যোগ্য প্রার্থীর বঞ্চিত হওয়ার শঙ্কা সৃষ্টি হবে।
নানা আশ্বাস আর উন্নয়নমূলক স্লোগান সংবলিত আওয়ামী লীগের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীদের পোস্টার এখন চাটখিল পৌরসদর ও ওয়ার্ডের অলিতে গলিতে। কারণ, দল থেকে এবার পৌরসভা নির্বাচনে কাউন্সিল প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া হবে চলতি মাসের শেষে। তাই মনোনয়ন পেলেই কাউন্সিলর এমন দৃঢ় বিশ্বাস থেকে দলের মনোনয়ন পেতে মরিয়া যোগ্য, অযোগ্য সব প্রার্থী। তবে অতীতের উন্নয়নের কথা তুলে ধরে যোগ্যরাই মনোনয়ন পাবেন- এমন দাবি পুরাতন কাউন্সিলরদের।
চাটখিল পৌরসভার ২নং সুন্দরপুর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর মজিবুর রহমান নান্টু বলেন, এ এলাকায় খারাপ কাজের বিরুদ্ধে আমি সামাজিক আন্দোলন গড়ে তুলেছি। পরবর্তীতে আবার নির্বাচিত হলে বেকারদের জন্য কারিগরি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান করার পরিকল্পনা রয়েছে।

১ নং (ফতেপুর,মির্জাপুর ও ত্রিঘরিয়া) ওয়ার্ডের যুবলীগ নেতা ও কাউন্সিলর প্রার্থী মাসুদ রানা বলেন, দেশের নিয়ে কথা হবে। তেমন ভাবে ওয়ার্ডকে গড়তে চাই।

সবার অধিকার আছে দলে মনোনয়ন চাওয়ার এমন মত আওয়ামী লীগের নতুন সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থীদের।

মেয়র থাকলেও আইনে নেই দলের কাউন্সিল প্রার্থী মনোনয়ন দেয়া। এর মাধ্যমে মনোনয়ন বাণিজ্যের সুযোগ তৈরি হবে বলে মত দিয়েছেন চাটখিল একাধিক নেতারা।