৯২এর তুখোর ছাত্রলীগনেতা বাবুল, পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর হতে চান

অশ্রুবিন্দু পাটোয়ারী : নুরুল আমিন বাবুল, দীর্ঘ আওয়ামীলীগের রাজনীতির সাথে জড়িত থেকে এই বারেই প্রথম চাটখিল পৌরসভার ওয়ার্ড নং-১ থেকে কাউন্সিলর নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেন তিনি। বর্তমান কাউন্সিলরের পাশাপাশি সমানতালে কাজ করছেন থানা আওয়ামী লীগে এই নেতা নুরুল আমিন বাবুল, পেশায় তিনি ব্যবসায়ী।  চাটখিল উপজেলাতো আছেই রাজধানী ঢাকাতে আলী এরশাদ (ডিগ্রী মাহাজন) নামে পরিচিত পিতার সন্তান নুরুল ইসলাম বাবুল। তিনি ১৯৮৬ সালে আওয়ামীলীগের অসময়ের ছাত্রলীগের রাজনীতিতে যোগদিয়ে আজকের আওয়ামীলীগের রাজনীতি পর্যন্ত দীর্ঘ সময়ের আওয়ামীলীগের সাথে আছেন । যখন আওয়ামীলীগের নাম পর্যন্ত মূখে নেওয়া মানে নির্যাতন করা হত তখন তিনি ছাত্রলীগের কর্মী। ১৯৯২ সালের বিএনপির ভরা যৌবনে কলেজ সংসদ নির্বাচন করেন। ২১ সদস্য কলেজ সংসদ নির্বাচনে, সে সময়কার বিরোধী দলীয় প্রার্থী হয়েও ৭জন জয় লাভ করে তার মধ্যে নুরুল ইসলাম বাবুল একজন।  সাবেক ছাত্রলীগের এই নেতা  চাটখিলবার্তাকে জানান, ১৯৯২ চাটখিল কলেজ সংসদ নির্বাচন (চা.ক.স.নি) অনুষ্ঠিত হয়েছে। নাজমুল হুদা শাকিল ও জিএস লিটন প্যানেলের সদস্য হিসেবে তিনি সহ ৭জন লাভ করে। সেই সময় বিএনপি ক্ষমতায় থাকায় নির্বাচনে জয়টা কতটুকু কঠিন হয়েছে সেটা বলা মুসকিল, কিন্তু সে সময়ের ছাত্র-ছাত্রীরা আমাকে অধিক পরিমান ভালোবাসতো বলেই আমি আওয়ামীলীগের কঠিন সময়ে ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে কলেজ সংসদ নির্বাচনে জয় লাভ করেছি। মধ্য ফতেপুর আলী এরশাদ ডিগ্রী মাহাজনের বাড়ি নামক এক মুসলিম পরিবার ১৮ ফেব্রুয়ারী ১৯৭২ সালে জন্ম্ গ্রহন করেন নুরুল ইসলাম বাবুল। মাতা জহুরা বেগমের দ্বিতীয় সন্তান নুরুল ইসলাম বাবুল ১৯৯০সালে অনুষ্ঠিত এসএসসি পরীক্ষায় ভীমপুর বহুমূূখী উচ্চ বিদ্যালয় থেকে উর্ত্তীন্ন হয়ে চাটখিল পাঁচগাঁও মাহবুব সরকারী সরকারী কলেজে ভর্তি হয়েছে ১১৯২ সালে কলেজ সংসদ নির্বাচনে বিরোধী দলের প্যানেল বাংলাদেশ ছাত্রলীগ থেকে সদস্য নির্বাচিত হয়েছে একই বছর এইচএসসি এবং ১৯৯৪ সালে তিনি সম্মান (পাশ কোর্স) থেকে ডিগ্রী পরীক্ষা পাশ করেন। কর্মজীবনে তিন ট্রাক ব‌্যবসার সাথে জড়িত হয়ে ব্যবসায়ী হিসেবে কর্মজীবন অতিবাহিত করছেন।