সেনবাগে গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগ

বিশেষ প্রতিনিধি : নোয়াখালীর সেনবাগ উপজেলায় আমেনা বেগম (২৪) নামে এক গৃহবধুকে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামী ও শ্বাশুড়ীর বিরুদ্ধে। গত বুধবার বিকালে উপজেলার ছিলনিয়া ইউনিয়নের চাচুয়া গ্রামে এ হত্যাকান্ডের ঘটনাটি ঘটে। নিহত আমেনা বেগম ছিলনিয়া ইউনিয়নের চাচুয়া গ্রামের মোশারফের স্ত্রী। বৃহস্পতিবার দুপুরে নিহতের চাচাতো ভাই লিটন জানান, গত ৮ বছর আগে সেনবাগ উপজেলার ছিলনিয়া ইউনিয়নের চাচুয়া গ্রামের আবদুল বারেকের ছেলে মোশারফের সাথে বেগমগঞ্জ উপজেলার দুর্গাপুর ইউনিয়নের মৃত নুরুজ্জামানের মেয়ে আমেনার বিয়ে হয়। বিয়ের পর থেকে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে স্ত্রী আমেনাকে মারধর করতো স্বামী মোশারফ ও শ্বাশুড়ী। তাদের ঘরে ২টি সন্তানও রয়েছে। তিনি আরো জানান, গত মঙ্গলবার রাতে ও বুধবার সকালে পারিবারিক বিষয়াদি নিয়ে স্বামী মোশারফ ও শ্বাশুড়ী আমেনাকে বেদম মারধর করে। পরে এক পর্যায়ে আমেনার মুখে জোরপূর্বক বিষ প্রয়োগ করে। এতে আমেনা অসুস্থ হয়ে পড়লে স্বামী মোশারফ তাকে চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসে। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় বুধবার রাতে আমেনা মারা যায়। পরে স্বামী মোশারফ হাসপাতালে তার স্ত্রীর লাশ রেখে পালিয়ে যায়। সেনবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হারুন অর রশিদ গৃহবধুর মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতন্তের জন্য প্রেরণ করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, ময়নাতদন্তের রিপোর্ট হাতে আসলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।