শীতকালের কম্বল বসন্তে বিতরণ করায় সমালোচনার সৃষ্টি,

লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের অর্থায়নে এক হাজারেরও অধিক কম্বল বিতরণ করা হয়েছে। রোববার (২৩ ফেব্রুয়ারি) রাতে জেলা পরিষদের হলরুমে এসি চালিয়ে কম্বলগুলো বিতরণ করা হয়। তবে জেলায় শীতের কোন প্রভাব নেই বললেই চলে।

এদিকে শীতকালের কম্বল বসন্তে বিতরণ করায় সচেতন মহলে সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

সরেজমিনে দেখা গেছে, অতিথিদের পরনে স্যুট থাকলেও কম্বল নিতে আসা একজনকেও শীতের কাপড় পরতে দেখা যায়নি। হলরুমের তিন এসি ও এক পাখা চালু ছিল। তবুও আবহাওয়া ও মানুষের ভীড়ে কক্ষটির তাপমাত্রা গরম ছিল। এছাড়া, কম্বল বিতরণের এক পর্যায়ে হট্টগোল দেখা দেয়।

লক্ষ্মীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহান জানান, তিনি অসুস্থ থাকার কারণে কম্বল বিতরণে বিলম্ব হয়েছে। তা না হলে সঠিক সময়ে কম্বল বিতরণ করা হতো। তবে কম্বল নেওয়ার জন্য সহস্রাধিক নারী-পুরুষ উপস্থিত হওয়ায় উদ্যোগ সফল হয়েছে বলে জানান অন্যান্য বক্তারা।

জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. শাহজাহানের সভাপতিত্বে কম্বল বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি ছিলেন অঞ্জন চন্দ্র পাল। পরিষদের সদস্য মাহবুবুল হক মাহবুবের সঞ্চালনায় এসময় বিশেষ অতিথি ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট নুর উদ্দিন চৌধুরী নয়ন ও জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ সফিউজ্জামান ভূঁইয়া।

প্রসঙ্গত, প্রায় দুই মাস আগে পরিষদের অর্থায়নে জেলাব্যাপী চার হাজার শীতার্তের মাঝে কম্বল বিতরণের উদ্যোগ নেওয়া হয়। পর্যায়ক্রমে কম্বলগুলো বিতরণ করা হবে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।