বাংলাদেশীদের জন্য দ্রুত শ্রমবাজার খুলতে আগ্রহী মালয়েশিয়া

বাংলাদেশীদের জন্য দ্রুত শ্রমবাজার খুলতে মালয়েশিয়া আগ্রহী বলে জানিয়েছেন দেশটির মানবসম্পদ বিষয়কমন্ত্রী এম কুলাসেগেরান। তিনি বলেছেন, আমাদের অর্থনীতির আকার বাড়ছে। ফলে মালয়েশিয়া এই মুহূর্তে কর্মী সঙ্কটে রয়েছে। এ অবস্থায় আরও কর্মী দরকার। এর চেয়ে বড় বিষয় আমরা শ্রমবাজারের পরিধি বাড়িয়েছি। আমরা গৃহকর্মী নিতে চাই। আশা করি দ্রুত আমরা সব বিষয় ঠিক করতে পারব। রবিবার প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ইমরান আহমদের সঙ্গে মালয়েশীয় মন্ত্রীর বৈঠক হয়। বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের তিনি এ তথ্য জানান।

কুলাসেগেরান বলেন, আমরা বাংলাদেশ থেকে কর্মী নিতে চাই। এজন্য আমি বাংলাদেশে এসেছি। শ্রমবাজার চালু সংক্রান্ত কিছু বিষয়ে একমত হয়েছি। এর মধ্যে ২৬ ফেব্রুয়ারি জয়েন্ট ওয়ার্কিং কমিটির মিটিং আছে। আমাদের মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা কয়েকটি বিষয় ফাইনালাইজড করতে মিটিংয়ে যোগ দেবেন। সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের উত্তরে মালয়েশিয়ার মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশের জন্য শ্রমবাজারটি শীঘ্রই চালু হবে। আসন্ন বৈঠকে যে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে তা মালয়েশিয়ার মন্ত্রিপরিষদে উত্থাপন করা হবে। মন্ত্রিপরিষদে এটি পাস হলেই কেবল শ্রমবাজারটি উন্মুক্ত হবে। মালয়েশিয়ায় অবৈধ বাংলাদেশী কর্মীদের নিয়ে এক প্রশ্নের উত্তরে এম কুলাসেগেরান বলেন, এটা আমার দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় তদারকি করছে। এ বিষয়ে তারা সিদ্ধান্ত নেবেন। এদিকে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ সাংবাদিকদের বলেন, মালয়েশিয়ায় শ্রমবাজার চালুর বিষয়ে শুরু থেকেই কুলাসেগেরান এবং আমি একমত ছিলাম। আমরা আনন্দিত যে বাজারটি উন্মুক্ত হওয়ার পথে। তবে মালয়েশিয়ায় কর্মী প্রেরণের বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত হবে ২৬ ফেব্রুয়ারি জয়েন্ট ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠকে। যা ২৪ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল।