বদলকােটে গোয়াল ঘরের আবর্জনায় পুকুরে পানি দূষিত

স্টাফ রিপোর্টারঃ চাটখিল উপজেলার বদলকোট ইউনিয়ন এর ৭নং ওয়ার্ড উত্তর বদলকোট, আমিন উদ্দিন পাটোয়ারী (বুদাজী) বাড়ীর পশ্চিম পাশে পুকুরটি প্রায় ১৪, ১৫ পরিবার দীর্ঘদিন থেকে ব্যবহার করে আসছে। বাড়ীটির মোঃ হারুন-অর রশিদ, পিতাঃ মৃতঃ আনা মিয়া, দীর্ঘদিন থেকে পুকুর পাড়ে গোয়াল ঘর তৈরী করে পশু পালন করে আসছে। গোয়াল ঘরের নোংরা-আবর্জনা সব পুকুরে পেলে। বৃষ্টির পানির সাথে আবর্জনা নেমে পুকুরে পানি নোংরা হয়ে যায়। এ অবস্থায় পুকুরের পানি ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। সেই সাথে পুকুরে আবর্জনা মিশ্রিত পানির দূর্গন্ধে ভারী হয়ে উঠেছে চারপাশের পরিবেশ। এ অবস্থায় গোয়াল ঘর সরাতে বলে হারুর-অর রশীদ ও তার স্ত্রী পুকুর ব্যবহারকারী মহিলাদের গায়ে হাত তুলেত যায়। তাছাড়া হারুনের ভাই আনোয়ার হোসেন বিদেশ থেকে ফোনে পুকুর ব্যবহার কারীদের গালাগালী, হামকী, দমকী ও টাকার গরম দেখায়। এ অবস্থায় পুকুরের পানি নষ্ট হয়ে ব্যবহৃত পানির চরম ভোগান্তি সৃষ্টি হয়েছে। পুকুরটির পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার স্বার্থে এলাকার গন্যমান্য ব্যাক্তিদের জানিয়েও কোন লাভ হয় নাই। সরজমিনে দেখা যায়, পুকুর পাড়ের গোয়াল ঘর থেকে আবর্জনা ফেলার কারণে পুকুরে পানি দূষিত হয়ে শিশুদের নানা ধরনের পানিবাহীত রোগে আক্রান্ত হতে পারে বলে অভিযোগ করে ব্যবহার কারীরা। তাছাড়াও প্রতি বছর হারুন তার জমিনে পানি দেওয়ার জন্য পুকুরের পানি সেচে নিয়ে যায়। প্রায় ২,৩ মাস ব্যবহৃত পানির সংকটে পড়তে হয় । বাড়ীর মহিলা পুরুষদের অনুরোধ পুকুরটি পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করার জন্য উপজেলা পরিষদের হস্থক্ষেপ কামনা করেছেন।