জীবনের ঝুঁকির মধ্যে নিরলস দায়িত্ব পালন করে আসছে চাটখিলের কৃতি সন্তান এএসপি আরেফিন সিদ্দীক

মোহাম্মদ আরেফিন সিদ্দীক, এএসপি, চট্রগ্রাম বিভাগ

মাইনউদ্দিন বাঁধন:: বিশ্বজুড়ে ছড়িয়ে পড়া করোনাভাইরাস মোকাবেলায় সবার আগে মাঠে নামে পুলিশ। সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা ও নিরাপত্তার বিভিন্ন কার্যক্রমে অংশ নেওয়ার পাশাপাশি সংকটকালে নাগরিকদের পাশে থেকে মানবিক সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন এই বাহিনীর ‘যোদ্ধা’ সদস্যরা। ত্রাণসামগ্রী বিতরণ, অসুস্থ রোগীকে হাসপাতালে নেওয়া, করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির পরিবার ও প্রতিবেশীর সুরক্ষায় কোয়ারেন্টিন নিশ্চিত করা, এমনকি মারা যাওয়া ব্যক্তির লাশ দাফনও করছে পুলিশ। দরিদ্র ও অসহায় মধ্যবিত্তের ঘরে খাবারও পৌঁছে দিচ্ছে পুলিশ। এমন মানবিকতার হাত বাড়িয়ে পেশাদারি কাজ করায় এরই মধ্যে পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা দেশের মানুষের প্রশংসাও কুড়িয়েছেন।
এই ঝুঁকিপূর্ণ কাজ করতে গিয়ে এরই মধ্যে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন পুলিশের প্রায় ৭হাজার  সদস্য। দিন দিন বাড়ছে সংক্রমণের হার।
তবে এতসব কস্ট কিংবা জীবনের ঝুঁকির মধ্যে নিরালশ দায়িত্ব পালন করে আসছে চাটখিলের কৃতি সন্তান এএসপি আরেফিন সিদ্দীক। দেশ এবং দেশের বাহিরে মানুষ যখন অনেকটাই হতাশ হয়ে, কাজ-কর্ম ছেড়ে ঘরে ঢুকে পড়েছে। ঠিক তখই কক্সবাজারকে সুরক্ষীত রেখেছেন এএসপি আরেফিন।
তিনি চাটখিলবার্তার অনলাইনকে বলছেন, আমরা আল্লাহর উপরে ভরসা করে চলি, এতে আমি বিচলিত না।
তিনি পুলিশদের উদ্দ্যেশে বলেন, দেশপ্রেমে উদ্বুদ্ধ পুলিশ সদস্যরা। বরং সহকর্মীদের মৃত্যুশোককে শক্তিতে পরিণত করে কাজ করে যাচ্ছেন তাঁরা। পাশাপাশি নাগরিকদের সেবা দেওয়ার ক্ষেত্রে পুলিশ সদস্যদের সুরক্ষায় সচেতনতা বাড়ানো হয়েছে।
চাটখিলের এই কৃতিসন্তান পৌরসভার ৪নং ওয়ার্ড ভীমপুর গ্রামে জন্মগ্রহন করেন তার পিতা নাছির উদ্দিন ও মাতা শিরিন আক্তার খানম। তিনি পরিবারের ৪ ভাই-বোনের মধ্যে বাবা মায়ের দ্বিতীয় সন্তান।
চাটখিলের একটি মাত্র সরকারী উচ্চ বিদ্যালয় পি.জি স্কুল থেকে তিনি ২০০৫ সালে এইএসসি এবং ঢাকা বিজ্ঞান কলেজ থেকে এইচএসসি পাশ করে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে মাইক্রোবায়োলজিতে বিএসসি স্নাতক ও একই বিষয়ে স্নাতকোত্তর ডিগ্রী অর্জন করেন।২০১৪ সালে তিনি কোয়ালিটি কনট্রোলার অফিসার হিসেবে এনআইপিওআটি তে যোগদান করেন। আইসিডিডিআরবি, রিসার্চ অফিসার হিসেবে এবং ইনভেস্টমেন্ট কর্পোরেশন অফ বাংলাদেশ (আইসিবি) তে সিনিয়র অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। ৩৫ তম বিসিএসের মাধ্যমে বাংলাদেশ প্ল্যানিং কমিশনে এবং পরবর্তীতে ৩৬ তম বিসিএসের মাধ্যমে পুলিশ ক্যাডারে যোগদান করেন। বর্তমানে চট্টগ্রাম জেলা পুলিশে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে কর্মরত রয়েছেন।

সহকর্মীদের সাথে বিশেষ মুহুর্তে মোহাম্মদ আরেফিন সিদ্দীক, এএসপি, চট্রগ্রাম বিভাগ।