চির নিদ্রায় শায়িত হলেন বিএনপির উপজেলা সভাপতি আনোয়ার হোসেন

ফারুক সিদ্দিকী ফরহাদ:  চাটখিল উপজেলা বিএনপি’র সভাপতি আনোয়ার হোসেনের দাফন সম্পন্ন হয়েছে ।শনিবার ৩ ঘটিকার সময় চাটখিল পৌরসভার ৫ নং ওয়ার্ডের দৌলতপুর গ্রামের পারিবারিক কবরস্থানে চির নিদ্রায় শায়িত হলেন উপজেলা বিএনপি’র রাজনীতির উজ্জ্বল এই নক্ষত্র ।উপজেলা প্রশাসন এবং আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর তত্ত্বাবধানে স্বাস্থ্য বিধি অনুসারে আনোয়ার হোসেনকে দাফন করা হয় ।এর আগে নিজ বাড়ির সামনে ঈদগা মাঠে স্বল্পসংখ্যক পরিবারের সদস্য এবং রাজনৈতিক সহকর্মীদের উপস্থিতিতে তার জানাজা সম্পন্ন হয় । এদিকে আনোয়ার হোসেনের মৃত্যুতে চাটখিলে বিএনপি , যুবদল ও ছাত্রদলের নেতাকর্মীদের মাঝে গভীর শোক ও হতাশা পরিলক্ষিত হয়েছে। তার মরদেহ ঢাকা হতে চাটখিল আসার সংবাদ পেয়ে বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী হালিমা দীঘিরপাড় এবং তার বাড়ির সামনে মন্ত্রীর পুলের গোড়ায় অবস্থান গ্রহণ করে ।এছাড়া দৌলতপুর গ্রামের পশ্চিম পাশে ধামালিয়া মাঠ এবং শাহ নেয়ামত পুর রাস্তা হয়ে বিভিন্ন বিভিন্ন  গ্রাম্য পথে  বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মী তার বাড়ির উদ্দেশ্যে যাত্রা করে। অবস্থার পরিপেক্ষিতে দৌলতপুর গ্রাম ও আনোয়ার হোসেনের বাড়ির চতুর্পাশের সবগুলো সড়কের মুখে বিপুলসংখ্যক পুলিশ অবস্থান গ্রহণ করে।  বিএনপি’র  উল্লেখযোগ্য স্বল্প কয়েকজন নেতা  ছাড়া অন্য কাউকেই দৌলতপুর গ্রামে প্রবেশ করতে দেয়নি পুলিশ। তাই  হতাশ হয়ে ফিরে গেছেন অনেক নেতাকর্মী। অনেকে হতাশা প্রকাশ করেছেন দলের প্রিয় নেতার জানাজায় অংশগ্রহণ করতে না পারায়। এ বিষয়ে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে জানানো হয় , বিএনপি সভাপতি আনোয়ার হোসেন এর করো না উপসর্গ থাকায় সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে স্বাস্থ্যবিধি মেনে তাকে দাফন করা হয়েছে ।উল্লেখ্য , শনিবার ভোরে ঢাকাস্থ নিজ বাসায় অসুস্থতা বোধ করলে আনোয়ার হোসেনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পর কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।  পারিবারিক সূত্রে জানা যায় , তার পরিবারের কয়েকজন সদস্যের  কিছুদিন পূর্বে জ্বর হয়েছিল , তিনি নিজেও তিন দিন যাবত সামান্য জ্বরে ভুগছিলেন ।এদিকে আনোয়ার হোসেনের মৃত্যু করো না নাকি হূদরোগে তা নিয়ে রয়েছে ধোঁয়াশা। তবে উপজেলা যুবদল সভাপতি আনিস আহমেদ হানিফ চাটখিল বার্তাকে জানান , বিএনপি সভাপতি আনোয়ার হোসেন হূদরোগে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন মর্মে ঢাকা মেডিকেল কলেজ কর্তৃপক্ষ নিশ্চিত করেছেন।