চাটখিল সরকারি হাসপাতালে অনিয়ম – হ্যালো সাংসদ, তাৎক্ষণিক ব্যবস্থা গ্রহণ

বিশেষ প্রতিনিধি  : চাটখিল সরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা সেবা নিতে আসা রোগীর কাছ থেকে অবৈধ ভাবে টাকা দাবি করায় হাসপাতালের জরুরি বিভাগে কর্মরত কমিউনিটি মেডিকেল  উপ-সহকারী  আব্দুল্লাহ আল মামুন কে ভাসানচরে রোহিঙ্গা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে বদলি করা হয়েছে । ঘটনার বিবরণে জানা যায়, শুক্রবার সন্ধ্যায় স্থানীয় সুন্দরপুর গ্রামের দেলোয়ার হোসেন (৩৫) হাত ভাঙ্গা অবস্থায়  হাসপাতালের জরুরি বিভাগে আসেন , এ সময় জরুরী বিভাগে কর্মরত কমিউনিটি মেডিকেল উপ-সহকারী আব্দুল্লাহ আল মামুন  ভাঙ্গা হাত প্লাস্টার করা বাবদ রোগীর নিকট ০৪ হাজার টাকা দাবি করেন । পরবর্তীতে ব্যাপক দফারফা শেষে উক্ত দাবি ১৫০০ টাকা নির্ধারিত হয় । এসময় দরিদ্র দেলোয়ার হোসেনের কাছে টাকা না থাকায় তিনি টাকার জন্য তার এক আত্মীয়কে জানায় ,উক্ত স্বজন তৎক্ষণাৎ বিষয়টি নোয়াখালী  -১ আসনের সাংসদ এইচ এম ইব্রাহিমকে মুঠোফোনে অবহিত করেন । ঘটনার বিস্তারিত শুনে ঢাকা থেকে চাটখিলে আগমনের পথে সংসদ সদস্য  নিজ বাড়িতে না গিয়ে সরাসরি চাটখিল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এসে আরএমও ডা:  শহিদুল ইসলাম নয়ন সহ ভুক্তভোগী রোগীর উপস্থিতিতে ঘটনার  সত্যতা প্রমাণ পান। ভুক্তভোগির অভিযোগের ভিত্তিতে তৎক্ষণাৎ আব্দুল্লাহ আল মামুন কে পুলিশে সোপর্দ করা হয় । সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা: মোস্তাক আহমেদ হাসপাতালে না থাকায়  এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য মোবাইলে সাংসদ এইচ এম ইব্রাহিম তাঁকে নির্দেশনা প্রদান করেন ।  পরবর্তীতে স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা:মোস্তাক আহমেদ সংসদ সদস্য এইচ এম ইব্রাহিম এবং  নোয়াখালী জেলা সিভিল সার্জনের সাথে যোগাযোগ করে প্রশাসনিক ব্যবস্থা গ্রহণের শর্তে আব্দুল্লাহ আল মামুন কে থানা থেকে ছেড়ে দেওয়ার ব্যবস্থা করেন।  শনিবার সকালে জেলা সিভিল সার্জন কার্যালয় থেকে আব্দুল্লাহ আল মামুনকে ভাসানচর রোহিঙ্গা মেডিকেল ক্যাম্পে বদলির অর্ডার করা হলে তাৎক্ষণিক তাকে চাটখিল হাসপাতাল থেকেে রিলিজ করা হয় । এদিকে ঘটনার পরপরই বিষয়টি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের সুবাদে পুরো উপজেলায় ছড়িয়ে পড়লে এই কার্যক্রমের জন্য অনেকেই সাংসদ ইব্রাহিমকে অভিনন্দন জানাতে থাকেন । আলোচিত হতে থাকে নোয়াখালী -১ আসনে অনিয়ম হলে হ্যালো সাংসদ , তাহলে  তাৎক্ষণিকভাবেই ব্যবস্থা।