চাটখিল পৌরসভা নির্বাচনঃ সম্ভাব্য কাউন্সিলর পদে প্রার্থীর ছড়াছড়ি!!

স্টাফ রিপোর্টার : ২০১৫ সালে অনুষ্ঠিত হয়েছে চাটখিল পৌরসভা নির্বাচন। সে হিসেবে ২০২০ সালের ডিসেম্বরে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা। ২০১৫ সালের ডিসেম্বর আওয়ামীলীগ থেকে মনোনিত প্রার্থী বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় মোহাম্মদ উল্যা মেয়র হলেও কাউন্সিলর নির্বাচন হয়েছেন জাঁকজমক ও আনুষ্ঠানিকতার মাধ্যমে। ২০২০ সাল নির্বাচনে বছর হওয়ায় পৌর নির্বাচনে দুই দলের কাউন্সিলর প্রার্থীর ছড়াছড়ি দেখা দিয়েছে।  প্রতিটি দলের প্রার্থী রয়েছে সমান তালে, তবে প্রার্থীর জট সামলে আওয়ামী লীগ সমর্থিত কাউন্সিলরদের নাম ঘোষণা করবেন ক্ষমতাসীনরা। এদিকে প্রতিটি প্রার্থী নিজেদের দলীয় প্রার্থী বললেও দলের সিদ্ধান্তের বাহিরে কেউ নির্বাচনে অংশ গ্রহণ করবেনা বলে জানিয়েছেন। কিন্তু বিএনপি এখনও দোটানায়। কারণ দীর্ঘ ১৫ বছর ক্ষমতার বাহিরে থেকে দলে যেমন পাটল ধরছে সেই একই ভাবে চাটখিল উপজেলায় বিএনপির দু;পক্ষ এখন অনেকটাই মুখো-মুখি। তবে শেষ যাই হোক সব দল ব্যস্ত হয়ে পড়েছে নির্বাচনী কর্মকাণ্ডে। এদিকে উপজেলা র্শীষ স্থানীয় নেতাকর্মীরা বলেছেন,  মর্যাদার লড়াইয়ের এ নির্বাচনে দলের সিদ্ধান্তের বাইরে গিয়ে নির্বাচন করলে তাদের বিরুদ্ধে কঠোর শাস্তির হুমকি দিয়েছে উভয় দল। এরপরও উভয় দলেই উল্লেখযোগ্য সংখ্যক বিদ্রোহী প্রার্থী মাঠে থাকার আশঙ্কা করছেন সংশ্লিষ্টরা।  প্রসঙ্গত, চাটখিল পৌরসভা নির্বাচন শুধু মেয়র প্রার্থীরা দলীয় প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করার সুযোগ পাবেন। কাউন্সিলর প্রার্থীরা নির্দলীয় প্রতীকে নির্বাচন করবেন। তবে প্রতি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে একজন করে প্রার্থী দলের সমর্থন পাবেন।

এদিকে পৌরসভার  বিভিন্ন ওয়ার্ড ঘুরে দেখা যায় প্রায় অর্ধশতাধীক কাউন্সিল এখন ব্যানার পেস্টুন কিংবা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেকে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে প্রচারণা চালাচ্ছে।

ওয়ার্ড নং-০১: পূর্ব ফতেপুর, পশ্চিম ফতেপুর, ত্রিঘরিয়া এবং মির্জাপুর গ্রামের সমন্বয়ে গঠিত চাটখিল পৌরসভার ওয়ার্ড নং -০১। এখানে বর্তমানে কাউন্সিলর আবুল খায়ের এছাড়াও এই ওয়ার্ডে আওয়ামীলীগের দলীয় প্রার্থী হিসেবে ভোটে সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী নুরুল আমিন বাবুল, ডা. ফরিদ আহমেদ, যুবলীগ নেতা মাসুদ রানা প্রমূখ। বিএনপি থেকে দলীয় প্রার্থী সাবেক কাউন্সিলর নুরুন নবী, শহিদুল ইসলাম এবং এই ওয়ার্ডে যথারীতি জামায়াতের একজনকে প্রার্থী করা হয়।

ওয়ার্ড নং-০২: আওয়ামীলীগের কেন্দ্র নামে পরিচিত পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড দিদার স্কুল। এখান থেকে বরাবরই আওয়ামীলীগের প্রার্থী নির্বাচিত হয়ে থেকে। বর্তমান কাউন্সিল বাদশা তপদার হলেও এই ওয়ার্ডে জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা কাউন্সিল প্রার্থী সাবেক কাউন্সিলর মজিবুর রহমান নান্টু, বেল্লাল হোসেন এবং পৌর মার্কেটের ব্যবসায়ী মিন্টু নামের একজনকে কাউন্সিল হিসেবে প্রচারণা করতে দেখা গিয়েছে।

ওয়ার্ড নং-০৩: চাটখিল বাজারের ভীমপুর বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কারিঘরি কলেজ। এটি পৌরসভার সদরে অবস্থিত ৩নং ওয়ার্ডের নির্বাচনী ভোট কেন্দ্র। এই ওয়ার্ডে দীর্ঘদিনের কাউন্সিল হিসেবে নির্বাচিত বাহউদ্দিন ইউসুফ বয়সের কারণে বিগত নির্বাচনে সরে দাড়ালেও। বর্তমান কাউন্সিলর নজির আহমেদে প্রতিদ্ধীতা করেতে পারেন সম্ভাব্য প্রার্থী মোড়ল জসিম ও এইচ এম ফারুক, স্বপন পাটোয়ারি প্রমূখ।

ওয়ার্ড নং-০৪ : চাটখিল পৌরসভার ৯টি ওয়ার্ডের একমাত্র জামায়াতের নির্বাচিত কাউন্সিলরের ওয়ার্ড নং-৪। এই ওয়ার্ড থেকে বিগত নির্বাচনে আওয়ামীলীগের কাউন্সিল হলেও ২০১৫ সালের নির্বাচনে জামায়াতের প্রার্থী নির্বাচিত হয়েছে। বর্তমান কাউন্সিল জামাল আহমেদ এছাড়াও এই ওয়ার্ডে ভোট করতে পারেন জাহাঙ্গীর আলম, রিয়াজ খান ও সহিদুল ইসলাম  ।

ওয়ার্ড নং-০৫ :  চাটখিল পৌরসভার ৫নং ওয়ার্ড দৌলতপুর। এখানেও দীর্ঘদিন কাউন্সিলর হিসেবে দায়ীত্ব পালন কর আসছেন আবদুল কুদ্দুস। বর্তমান পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী আবদুল কুদ্দুস ব্যতিত এই ওয়ার্ড সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে ভোট করেবেন সাজ্জাদ বিন ইউসুফ, ওমর ফারুক ও বাবু খান।

ওয়ার্ড নং-০৬:  চাটখিল পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ড এই ওয়ার্ডের বর্তমান নির্বাচিত কাউন্সিলর এ.বি.এম জসিম উদ্দিন বাবলু। এই ওয়ার্ডে বিগত নির্বাচন গুলোতে আওয়ামীলীগের প্রার্থী বিজয়ী হলেও আওয়ামীলীগের প্রার্থীকে প্রতিদন্ধী করতে হয় আওয়ামীলীগের সাথে। তবে এই ওয়ার্ড থেকে নির্বাচনের জন্য ব্যানার ঝুলিয়ে জনগনের দৃষ্টি কাড়ছে যুবলীগ নেতা আবদুল করিম।

ওয়ার্ড নং-০৭: বিগত নির্বাচন গুলোতে কখনো শাহজানখান বাবুল আবার কখনো মমিনুল ইসলাম দুলাল পৌরসভার ৭নং ওয়ার্ড থেকে নির্বাচিত কাউন্সিলর হলেও এইবারে নতুন দুই মুখের সম্ভাব্য কাউন্সিলর প্রার্থী হিসেবে দেখা যাবে। বর্তমান কাউন্সিল মমিনুল হক দুলাল ছাড়াও ইতোমধ্যে আওয়ামীলীগের নতুন দুই প্রার্থী নির্বাচনের জন্য মাঠে নেমে প্রচারণা চালাচ্ছে। স্থানীয় ভাবে জানা যায়, ৭নং ওয়ার্ড থেকে সম্ভাব্য দুই প্রার্থী সালেহ সুমন ও ওমর ফারক কনকের নাম।

ওয়ার্ড নং-০৮: কমিশনার থেকে কাউন্সিলর পর্যন্ত বিগত পৌরসভার সকল ভোট বিজয়ী হয়েছে আহসান হাবিব সমীর। দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থেকে আহসান হাবিব সমীয় জনগণের পাশে থাকলেও এই বার পৌরসভার ৮নং ওয়ার্ড থেকে সম্ভাব্য প্রার্থী হতে পারেন মোরশেদ আলম ও আলাউদ্দিন চৌধুরী।

ওয়ার্ড নং-০৯:  চাটখিল পৌরসভার ৯নং ওযার্ড ছয়ানী টবগা। এই ওয়ার্ডে বর্তমান কাউন্সিলর নাওশাদুল করিম থাকলেও সম্ভাব্য প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে কাউন্সিল প্রার্থী হতে যাচ্ছেন হুমায়ুন কবির, মোহাম্মদ সাহেদ ও বাবু নামের কয়েকজন প্রার্থী।

 

কর্তৃজ্ঞতা: আবু নাছের রেজভী, মোহাম্মদ সুমন, দিদারুল আলম,  প্রভাষক মহিউদ্দিন বাবু, সালাউদ্দিন মন্টু ।