চাটখিলে শশুর বাড়ি থেকে স্ত্রীকে আনতে গিয়ে দু‘দফায় মারধর খেয়ে গুরুতর আহত স্বামী

মনির হোসেন:: চাটখিল উপজেলার রেজ্জাকপুর গ্রামের আবু তাহের আজাদ শশুর বাড়ী থেকে স্ত্রীকে আনতে গিয়ে দু‘দফায় হামলার স্বীকার হয়েছেন। স্ত্রীর পরকিয়া প্রেমিকের ভাড়াটে ফরহাদের নেতৃত্বে সন্ত্রাসীরা আজাদকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। এই ব্যাপারে সিনিয়র বিচারিক ম্যাজিষ্ট্রেট চাটখিল এর আমলী আদালতে একটি পিটিশন মামলা করা হয়েছে।

বাদীর অভিযোগে জানা যায়, একই উপজেলার লামচর গ্রামের রহমত উল্লাহর মেয়ে কাকলীর সাথে ২০১৪ সালের ৭ই ফেব্রুয়ারী ইসলামী শরীয়াহ মোতাবেক তাদের বিয়ে হয়। এ দম্পতির ১ ছেলে ও ১ মেয়ে সন্তান রয়েছে। গত প্রায় ৬ মাস পূর্বে কাকলী স্বামীর অনুপস্থিতিতে পিতার বাড়ীতে চলে যায়। স্ত্রী চলে যাওয়ার পর থেকে তাকে পিরিয়ে আনার জন্য মরিয়া চেষ্টা চালায় আজাদ। গত ১৫ নভেম্বর ২০২০ইং তারিখে বজরা বাজারে আজাদকে পিটিয়ে আহত করা হয়। সর্বশেষ গত ২৫ ডিসেম্বর ২০২০ইং স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমিকের ভাড়াটিয়া ফরহাদ তার সহযোগীদের নিয়ে আজাদকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে। সে চিকিৎসা শেষে মেডিকেল সনদসহ চাটখিলের আমলী আদালতে গিয়ে পিটিশন মামলা করে গত ৩১ ডিসেম্বর, যা বর্তমানে তদন্তাধীন রয়েছে।

এদিকে স্ত্রী সন্তান ছাড়া নিধারুন যন্ত্রনার মধ্যে দিন যাপন করছেন আজাদ। কতিপয় নারীলোভীরা কাকলীকে ভুল পরামর্শ দিয়ে ভুল পথে পরিচালিত করার মত অভিযোগ রয়েছে। অবিলম্বে আজাদ তার স্ত্রী ও সন্তানদের ফেরত পেতে চায়, এজন্য সে সকলের সহযোগিতা কামনা করেছেন।