চাটখিলের মেয়ে জান্নাতুলের অন্যরকম লড়াই |

প্রতিবন্ধী জান্নাতুল। দুই হাতের কব্জি নেই। তবুও অদম্য এই শিক্ষণার্থী পড়ালেখা চালিয়ে যাচ্ছে। ঢাকার আশুলিয়ায় পল্লীবিদ্যুৎ ডেন্ডাবরের সাবেক হবি মেম্বারের বাড়ির পাশে তার বসবাস। গ্রামের বাড়ি জেলার চাটখিল উপজেলাধীন মানিকপুরে। তার পিতার নাম জাহাঙ্গীর আলম। সাভারের গাজীর চট হাজী মতিউর রহমান বিদ্যালয়ের বিজ্ঞান বিভাগের এসএসসি পরীক্ষার্থী সে। কৃষক পিতা জাহাঙ্গীর আলম ও গৃহিনী মায়ের একমাত্র সন্তান জান্নাতুল।

ছোট বেলায় সাভারের নবীনগরে বসবাস করতো তারা। হঠাৎ একদিন বাড়ীর ছাদে থাকা ইলেকট্রিক তারে জড়িয়ে দুই হাতের কব্জি হারাতে হয় তাকে। পড়ালেখা থেকে পিছপা হয়নি জান্নাতুল। এবার সে তার প্রচেষ্টায় এসএসসি পরীক্ষা দিচ্ছে। জান্নাতুল জানায়, ছোট বেলা থেকে ডাক্তার হওয়ার স্বপ দেখি। এই স্বপ্ন বুকে নিয়েই অনেক কষ্ট করে আমার গর্ভ ধারিনী মায়ের অনুপ্রেরনায় লেখাপড়া চালিয়ে যাচ্ছি। ভবিষ্যতেও লেখাপড়া চালিয়ে যাবো। আমি মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও দেশবাসীর সহযোগিতায় লেখাপড়া চালিয়ে যেতে চাই। চাই, আপনাদের সহযোগিতা। আমার কৃষক বাবা ও গৃহিনী মায়ের একমাত্র মেয়ে আমি। আমাকে নিয়ে তাদের অনেক আশা। আমি এবার অনেক কষ্ট ও টাকা ম্যানেজ করে এসএসসি ফরম পূরণ করেছি।

জান্নাতুলের মা জানান, মেয়ে জান্নাতুলের পড়াশোনায় প্রবল আগ্রহ। তার পড়াশোনা খরচ চালিয়ে যাওয়া খুবই কষ্ট সাধ্য। তিনি মেয়ের পড়াশুনার জন্য দেশবাসীর সাহায্য চেয়েছেন।