উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন: সভাপতি প্রার্থী নুর উদ্দিন উজ্জল 

নোয়াখালী-১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের সাংসদ এইচ এম ইব্রাহিমের সাথে সভাপতি প্রার্থী নুর উদ্দিন উজ্জল। ছবি- সংগ্রহীত

উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলন আসন্ন। এরই মধ্যে প্রার্থীদের দৌড়ঝাঁপ শুরু হয়ে গেছে। একপদে একাধিত প্রার্থী ছুটছেন কাউন্সিলরদের দ্বারে দ্বারে। তবে একাধিক প্রার্থী থাকলেও দলের জন্য নিবেদিত, সৎ ও যোগ্যদেরই মূল্যায়ন করবেন সিনিয়র নেতৃবৃন্দ এমনটিই বিশ্বাস করছেন প্রার্থীগণ। নোয়াখালী ১ (চাটখিল-সোনাইমুড়ী) আসনের আওতাধীন চাটখিল উপজেলা। এই উপজেলাটি বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নির্বাচতি সাংসদ এইচ.এম. ইব্রাহিমের নির্বাচনী এলাকা। স্বাধীনতার পর থেকে এ আসনে বরাবরই বিএনপির আসনে হিসেবে গন্য হলেও গত ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের নির্বাচনে নৌকার বিজয় হয়েছে। নৌকার জয়কে অবহৃত রাখতে আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীরা বিভিন্ন সামাজিক রাজনীতি ও সমাজ সেবামুলক কাযাবলী চালিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী রাজনীতির অন্যতম সহযোগী সংগঠন-ছাত্রলীগ। সম্প্রতি চাটখিল উপজেলা ছাত্রলীগের সম্মেলনকে কেন্দ্র করে যে উত্তাপ ছড়িয়েছে তা লক্ষ্য করার মতো। ছাত্রলীগের কয়েকজন তৃণমূল নেতাকর্মীর সাথে কথা বলে জানা যায়, পৌর ছাত্রলীগের সভাপতি নুর উদ্দিন উজ্জল তপদার চাটখিল উপজেলা ছাত্রলীগ সভাপতি প্রার্থী। উজ্জল তপদার সকলের কাছে সৎ, সাহসী, মেধাবী হিসেবে পরিচিত। বঙ্গবন্ধু আদর্শে অনুপ্রাণিত নুর উদ্দিন উজ্জল দলের প্রয়োজনে সর্বদা মাঠে থাকে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন উচ্চ পর্যায়ের স্থানীয় আওয়ামীলীগ এবং যুবলীগ নেতার মতে উজ্জল তপদার খুব ভাল ছেলে, কর্মীবান্ধব ছাত্রনেতা। পরীক্ষিত সেই নেতাকর্মীদের নিয়ে দলের প্রয়োজনে যাতে যেকোন পরিস্থিতি মোকাবেলা করা যায়। উজ্জল ঠিক মেতনই একজন নেতা। তিনি মাঠে ছিলেন আছেন ও থাকবেন। এক প্রশ্নের উজ্জল জানান, দলীয় এমপি এবং উদ্ধোতন নেতাকর্মীরা ও উপজেলা আ.লীগের নেতৃত্ব স্থানীয়রা যাকে মনে করবে তাকেই মনোনয়ন দিলে মাথা পেতে নেব। কারণ দল করি ভালোসেবে। শুধু পদের জন্যে জয়। তারপরেও দলের জন্যে জীবন বাজি রেখে কাজ করে যাবো।