এইমাত্র পাওয়া খবর: 
রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করুন, আপনার পাশে থাকা হতদরিদ্রদের সহযোগীতায় এগিয়ে আসুন-চাটখিলবার্তা পরিবার-০১৭১২২৩১৯১২, ০১৮৩১০১৬৭২০, ০১৭১০৬৪০৩৫৫  *  রমজানের পবিত্রতা রক্ষা করুন, আপনার পাশে থাকা হতদরিদ্রদের সহযোগীতায় এগিয়ে আসুন-চাটখিলবার্তা পরিবার-০১৭১২২৩১৯১২, ০১৮৩১০১৬৭২০, ০১৭১০৬৪০৩৫৫  *  চাটখিলবার্তা পড়ুন, চাটখিলের সকল খরব জানুন log in : www.chatkhilbarta.net যোগাযোগ করুন : ০১৭১২২৩১৯১২, ০১৮৩১০১৬৭২০ ইমেই করুন: news@chatkhilbarta.net
শিরোনাম: 
| ২৫  সেপ্টেম্বর - ২০১৭

আলোকিত ব্যক্তিত্ব » শিক্ষক  » মৃত

কবীর চৌধুরী

Morning - 11:25 AM   Tuesday   2017-01-24

A- A A+

আবুল কালাম মোহাম্মদ কবীর। তবে কবীর চৌধুরী নামেই সর্বাধিক পরিচিত। ডাক নাম মাণিক। শিক্ষাবিদ, প্রাবন্ধিক ও অনুবাদক ১৯২৩ সালের ৯ ফেব্রুয়ারি ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় জন্মগ্রহণ করেন। পৈত্রিক নিবাস চাটখিল উপজেলার গোপাইরবাগ গ্রামে। গ্রামে তাঁদর বাড়ির নাম ছিল 'মুন্সী বাড়ি'। পিতা খান বাহাদুর আবদুল হালিম চৌধুরী ও মা আফিয়া বেগম। তাঁর ভাই শহীদ বুদ্ধিজীবী মুনীর চৌধুরী, বোন প্রখ্যাত অভিনেত্রী ফেরদৌসী মজুমদার। ১৯৩৮ সালে তিনি ঢাকা কলেজিয়েট স্কুল থেকে মাধ্যমিক পাস করেন এবং বোর্ডে সপ্তম স্থান অধিকার করেছিলেন। ১৯৪০ সালে ঢাকা ইন্টারমিডিয়েট কলেজ থেকে উচ্চমাধ্যমিক পাস করেন এবং বোর্ডে চতুর্থ স্থান অধিকার করেছিলেন। ১৯৪৩ সালে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে অনার্সে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম এবং পরের বছর ১৯৪৪ সালে একই বিষয়ে এমএ-তে প্রথম শ্রেণীতে প্রথম স্থান লাভ করেন এবং স্বর্ণপদক লাভ করেন। কবীর চৌধুরী ১৯৪৫ সালের জুন মাসে মেহের কবিরকে বিয়ে করেন। উল্লেখ্য মেহের কবীর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের অধ্যাপিকা ছিলেন। ১৯৪৪ সালে পাবনা এডওয়ার্ড কলেজের ইংরেজির অস্থায়ী অধ্যাপক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরে রাজশাহী সরকারি কলেজ, ঢাকা কলেজ, বরিশালের বিএম কলেজ ও ময়মনসিংহের আনন্দমোহন কলেজে শিক্ষকতা করেন। ১৯৫৭-৫৮ সালে ফুলব্রাইট বৃত্তিধারী হিসেবে আমেরিকার মিনেসোটা বিশ্ববিদ্যালয়ে মার্কিন সাহিত্য সম্পর্কে এবং ১৯৬৩-৬৫ সালে সাদার্ন ক্যালিফোর্নিয়া বিশ্ববিদ্যালয় থেকে লোকপ্রশাসন সম্পর্কে উচ্চতর গবেষণা সম্পন্ন করেন। ১৯৬৯ থেকে ১৯৭২ সাল পর্যন্ত বাংলা একাডেমীর প্রধান হিসেবে পরিচালক পদে দায়িত্ব পালন করেন। বাংলাদেশ সরকারের শিক্ষা, ক্রীড়া ও সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়ের সচিব হিসেবে ১৯৭৩-৭৪ সালে দায়িত্ব পালন করেন। ১৯৭৪ সালে স্বেচ্ছায় সরকারী চাকুরী থেকে অবসর নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ইংরেজীর অধ্যাপক হিসেবে যোগদান করেন। ১৯৯৮ সালে তিনি জাতীয় অধ্যাপক পদ লাভ করেন। এছাড়াও বাংলাদেশ জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিজিটিং প্রফেসর হিসেবে "কালচার স্টাডিজ" কোর্সে গ্রাজ্যুয়েট স্তরে শিক্ষা দান করেছেন তিনি৷ সর্বশেষ ২০১০ সালে জাতীয় শিক্ষানীতি প্রণয়ন কমিটির চেয়ারম্যান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেন। উদার ও অসাম্প্রদায়িক শিক্ষাব্যবস্থা চালুর। ১৩ ডিসেম্বর ২০১১ নয়াপল্টন ঢাকায় নিজ বাসভবনে ৮৯ বছর বয়সে মৃত্যু বরণ করেন । ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধে ভাই মুনীর চৌধুরী-কে হারান। যুদ্ধোত্তর বাংলাদেশে যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের জন্য তিনি সোচ্চার ছিলেন। নব্বইয়ের দশকে শহীদ জননী জাহানারা ইমামের নেতৃত্বে সমমনাদের নিয়ে গঠন করেন ‘একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটি’।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।


News of your area

usericon

Be the First to Commnent

Also on chatkhil.com

fbnglkjhfkhjof
fgjhnghu
fbnglkjhfkhjof
fgjhnghu
fbnglkjhfkhjof
fgjhnghu
fbnglkjhfkhjof
fgjhnghu

আলোকিত ব্যক্তিত্ব

Powered by চাটখিলবার্তা :: Designed and Developed By Colour Spray Ltd.